logo
   প্রচ্ছদ  -   শিক্ষাঙ্গন

বদলি চান এমপিওভুক্ত শিক্ষকরা
Posted on Sep 07, 2019 01:06:49 PM.

বদলি চান এমপিওভুক্ত শিক্ষকরা

সৈয়দ এ আজমের গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জ। চাকরি করছেন লক্ষ্মীপুরের একটি কলেজে। তিনি বলেন, ‘হয়তো অনেকেই জানেন না, দেশের অন্যান্য ক্ষেত্রে বদলির ব্যবস্থা থাকলেও একমাত্র এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের কোনো বদলির ব্যবস্থা নেই।

 বদলির ব্যবস্থা না থাকায় আমাদের জীবনটা অনেকটাই যাযাবরের মতো।’

দ্রুত বদলি বাস্তবায়নের দাবিতে শুক্রবার সকালে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এমনপিওভুক্ত শিক্ষকদের বদলি বাস্তবায়ন কমিটি আয়োজিত মানববন্ধনে তিনি এসব কথা বলেন। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনিকে এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের বদলির বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানান মানববন্ধনকারীরা।

সৈয়দ আজম বলেন, ‘গত পাঁচ বছরে ধরে আমি চাকরি করছি। চাকরির কারণে আমার বাবা-মা গ্রামে থাকেন। তারা অসুস্থ, বৃদ্ধ। আমি দূর থেকে তাদের আত্মচিৎকার উপলব্ধি করতে পারি। কিন্তু কিছুই করার থাকে না। এটা যে কত কষ্টের, যারা বাইরে আছেন, বিভিন্ন জেলায় চাকরি করছেন, তারাই বলতে পারবেন।’

তার অভিযোগ, ‘এই চাকরিতে বদলির ব্যবস্থা না থাকায় স্থানীয় শিক্ষকরা কখনও সিন্ডিকেট তৈরি করে। দূর-দূরান্ত থেকে আসা শিক্ষকদের নির্যাতন করে তারা। সিন্ডিকেটের আওতায় শিক্ষকরা পড়লে তাদেরকে মানুষও মনে করা হয় না অনেক সময়।’

সুনামগঞ্জের দিরাই উপজেলার বিবিয়ানা মডেল কলেজে শিক্ষকতা করেন নীলফামারীর ডোমরা উপজেলার মো. ফরহাদ হোসেন। তিনি বলেন, ‘২০২০ সালের মধ্যে সরকার কার্যকর করা হওয়ার কথা বলছে সরকার। কিন্তু এখন পর্যন্ত আমরা সরকারের এ লক্ষ্যে বিশেষ কোনো পদক্ষেপ দেখতে পাচ্ছি না। আমাদের দাবি, ২০২০ সালের মধ্যে এই আইন কার্যকর করুক সরকার। কিন্তু তার আগে আমাদেরকে আশ্বস্ত করতে এ লক্ষ্যে গেজেট প্রকাশ করতে হবে।’

ফরহাদ হোসেন জানান, তার মা নেই, বাবা আছেন। দূরে চাকরি করার কারণে বাবার ঠিকঠাক খোঁজখবর রাখতে পারছেন না। অন্যদিকে তার ১৬ হাজার টাকা বেতনের ৫ হাজারই চলে যায় বাড়ি ভাড়ায়। স্বল্প বেতন ও দূরে কর্মস্থল হওয়ায় বিয়ে করার সাহসও করতে পারছেন না। এই বেতনে গ্রামের বাড়িতে থেকে চাকরি করতে পারলে তার সমস্যারই সমাধান হবে। এ রকম অনেকেই সমস্যায় রয়েছে। বদলির ব্যবস্থা থাকলে তারা অনেকেই উপকৃত হবেন বলে মনে করছেন।




  এই বিভাগ থেকে আরও সংবাদ

   শুক্রবার ঢাবি ‘গ’ ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা: ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ
   জেএসসি থেকে জিপিএ ৫ থাকছে না
   সরকারি হাই স্কুলের শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা আজ
   এবারও ক্ষুদে পরীক্ষার্থীদের উত্তরপত্র পুনর্মূল্যায়নে ১৮০ টাকা
   আনন্দঘন পরিবেশে হবে প্রাথমিকের পাঠদান
   খুবিতে ভর্তির আবেদন প্রক্রিয়া শুরু
   পঞ্চম শ্রেণির খাতা মূল্যায়ন পদ্ধতিতে পরিবর্তন
   বেসরকারি শিক্ষকদের আগস্টের বেতন ব্যাংকে
   প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগের ফল সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে
   শিক্ষকদের কোচিং বাণিজ্য বন্ধে বিদ্যালয়ে হবে কমিটি
   এমপির পছন্দের ব্যক্তিই হবেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের সভাপতি
   প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনী পরীক্ষার সময় সূচি প্রকাশ
   বিসিএসে ভাইভা ভীতি কাটাতে চা-বিস্কুটের ব্যবস্থা
   কুয়েটে ১ম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষা ১৮ অক্টোবর
   দুপুরের খাবার পাবে প্রাথমিকের শিক্ষার্থীরা
   এইচএসসিতে ফেল থেকে পাস ৫৫৫ জন
   এ বছরই সরকারি হচ্ছে ১০ হাজার কলেজশিক্ষকের চাকরি
   শোক দিবস পালনে প্রাথমিকে ১৩ কোটি টাকা বরাদ্দ
   সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার তারিখ ঘোষণা
   কাল থেকে অনলাইনে শুরু হচ্ছে ঢাবি’র স্নাতক শ্রেণীতে ভর্তি
   গ্র্যাজুয়েট ডিগ্রি পেলেন ১১৫১ শিক্ষার্থী
   ডেঙ্গু ও ছেলেধরার গুজব বিষয়ে শিক্ষা বোর্ডের নির্দেশনা
   ডেঙ্গু প্রতিরোধে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সর্তকতা জারি
   ৪০তম বিসিএস’র প্রিলিতে উত্তীর্ণ হলেন যারা
   ৪০তম বিসিএসের ফলাফল আজ
   বিশ্ববিদ্যালয়ে ৬৪ হাজার আসনে লড়বে ১৩ লাখ শিক্ষার্থী
   ১৫তম শিক্ষক নিবন্ধনের লিখিত পরীক্ষা ২৬ ও ২৭ জুলাই
   নাগরপুরে বন্যায় ৯২ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ
   নুসরাতের আলিমের ফল কাঁদাল সহপাঠীদের
   পাসের হারে শীর্ষে কুমিল্লা, তলানিতে চট্টগ্রাম


  পুরনো সংখ্যা