logo
   প্রচ্ছদ  -   আন্তর্জাতিক

বিলুপ্ত পাখির দেখা মিলল লাখ বছর পর!
Posted on May 15, 2019 01:16:31 PM.

বিলুপ্ত পাখির দেখা মিলল লাখ বছর পর!

ছবির মতো সাজানো দ্বীপ আলডাবরা। এটি ভারত মহাসাগরের ওপর বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম প্রবাল দ্বীপ।  এই দ্বীপেই একসময় বাস ছিল ‘হোয়াইট থ্রোটেড রেল’-এর। প্রায় এক লাখ ৩৬ হাজার বছর আগে সমুদ্রের তলদেশে নিশ্চিহ্ন হয়ে যায় দ্বীপটি। বাসস্থান খুইয়ে হারিয়ে গিয়েছিল পাখিটিও। কিন্তু প্রকৃতিবিজ্ঞানীরা বলছেন, আবার ফিরে এসেছে বিলুপ্ত হয়ে যাওয়া সেই ‘হোয়াইট থ্রোটেড রেল’।


তবে এ ফিরে আসার কাহিনিও বিচিত্র। এ নিয়ে দ্বিতীয়বার তারা অবলুপ্তির গহ্বর থেকে ফিরে এলো। বিশেষজ্ঞদের দাবি, লাখ বছর আগের ওই ঘটনার কয়েক হাজার বছর পর পাখিটি আবার ফিরে এসেছিল। সে সময়ে সমুদ্রের পানি নেমে গিয়েছিল। পানি নামতেই দ্বীপটি আবার জেগে ওঠে। আর তখনই পাখিটি ফের রাজত্ব গড়ে তোলে এ প্রবাল দ্বীপে। এ দুই ঘটনার আগের ও পরের জীবাশ্ম খুঁজে পেয়েছিলেন বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু সবাইকে অবাক করে দিয়ে এখন তাঁরা বলছেন, ‘আলডাবরা দ্বীপে পাখিটি এখনো রয়েছে।’

বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, একে ‘ইটেরেটিভ ইভল্যুশন’ বলে। অর্থাৎ কোনো প্রাণীর উত্তরসূরিদের মধ্যে কোনো একটি প্রজাতির একাধিক বিবর্তন ঘটে। ইতিহাসের বিভিন্ন সময়ে ফিরে ফিরে আসে তারা। অন্যান্য প্রাণীর ক্ষেত্রে এমনটা দেখা গেলেও ‘রেল’ বা মাটিতে বসবাসকারী ছোট বা মাঝারি আকারের পাখিদের মধ্যে এমন নজির এ প্রথম। পাখিদের মধ্যেই এটি বেশ উল্লেখযোগ্য ঘটনা।

বিজ্ঞানবিষয়ক পত্রিকা ‘লিনিয়ান সোসাইটি’তে গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে।

পোর্টসমাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানী ডেভিড মারটিল বলেন, ‘রেল বা কোনো পাখির মধ্যেই আমরা এ ধরনের ঘটনা দেখিনি। এমন কোনো উদাহরণ নেই।’

রেলের ফিরে আসার ইতিহাস নিয়ে বিশেষজ্ঞরা জানাচ্ছেন, ‘রেল’ পরিবারের পাখিদের পূর্বপুরুষের বাস ছিল পূর্ব আফ্রিকার উপকূল থেকে ৪০০ কিলোমিটার দূরে ভারত মহাসাগরের মাদাগাস্কার দ্বীপে। একসময় এদের সংখ্যা এত বেড়ে যায় যে এরা দ্বীপ ছেড়ে অন্য স্থানে পাড়ি জমায়। কেউ উত্তরের দিকে উড়ে যায়, কেউ দক্ষিণে। কিন্তু এরা কেউই তেমন উড়তে পারত না। ফলে লম্বা পথ পাড়ি দিতে গিয়ে অনেকেই ভারত মহাসাগরে ডুবে যায়। যারা পশ্চিমে যায়, তারা আফ্রিকার মূল ভূখণ্ডে পৌঁছে। কিন্তু অচেনা অজানা জায়গায় গিয়ে তারা বিপদ ডেকে আনে। প্রাণ হারায় অধিকাংশই। কারো কারো ভাগ্য ভালো ছিল। তারা মরিশাস, রিইউনিয়ন, আলডাবরা পৌঁছে এবং সেখানে রাজত্ব গড়ে তোলে। কিন্তু সময়ের সঙ্গে তারা ওড়ার ক্ষমতাই হারিয়ে ফেলে। কারণ ওই সব দ্বীপে তাদের ওড়ার প্রয়োজন পড়ত না। ফলে দ্বীপেই বন্দি হয়ে পড়ে। তাই দ্বীপ যখন সমুদ্রের তলদেশে ডুবতে থাকে, তারা আর পালানোর সুযোগ পায়নি। তত দিনে তারা আর একটুও উড়তে পারে না। ফলে দ্বীপের সঙ্গেই নিশ্চিহ্ন হয়ে যায় তারা। ঠিক যা ঘটেছিল ডোডো পাখিদের ক্ষেত্রে। কিন্তু ডোডো যা পারেনি, তাই করে দেখিয়েছে ‘হোয়াইট থ্রোটেড রেল’।

বিজ্ঞানী মারটিলের ভাষায়, ‘ভারত মহাসাগরের ওপর আলডাবরাই একমাত্র দ্বীপ, যেখানে এমন জীবাশ্ম রয়েছে, যা অবলুপ্তির প্রমাণ দেয় এবং দেখিয়ে দেয় সেখান থেকেও ফিরে আসা যায়।’ 
সূত্র : আনন্দবাজার।




  এই বিভাগ থেকে আরও সংবাদ

   এক খুন লুকাতে ৯ খুন!
   দ্বিতীয় পর্যায়ের প্রাদুর্ভাবের আশঙ্কায় বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হুঁশিয়ারি
   রাশিয়ায় রেকর্ড মৃত্যু
   দিল্লীতে ধেয়ে যাচ্ছে পঙ্গপাল
   গণহত্যা: আন্তর্জাতিক আদালতে প্রতিবেদন দাখিল মিয়ানমারের
   ভারতে বেতন না পেয়ে পরিবারসহ কুয়োয় ঝাঁপ, ৯ লাশ উদ্ধার
   বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫৩ লাখ ছাড়িয়েছে
   হোম কোয়ারেন্টিনে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী
   করোনা: সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যায় দ্বিতীয় ব্রাজিল
   ভারতে ফের একদিনে করোনায় সর্বোচ্চ আক্রান্তের রেকর্ড
   করাচিতে বিমান দুর্ঘটনায় নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৯৭
   ব্রাজিলে একদিনে রেকর্ড মৃত্যু
   যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্ত সাড়ে ১৫ লাখ ছাড়িয়েছে
   মৃত্যু ছাড়াল ৩ লাখ ২০ হাজার
   আমি প্রতিদিন একটি করে ম্যালেরিয়ার ট্যাবলেট খাই, বললেন ট্রাম্প
   করোনার উৎস সন্ধানে নিরপেক্ষ তদন্তে রাজি চীন
   করোনা আতঙ্কের মধ্যেই চীনে ভূমিকম্প, নিহত ৪
   কার্যকারিতা পাওয়া গেছে মডার্নার করোনা ভ্যাকসিনে
   করোনার ভ্যাকসিন নিয়ে বড় ঘোষণা আসছে: ট্রাম্প
   ভারতে করোনায় আক্রান্ত লাখের বেশি, মৃত্যু ৩১৬৩
   ভারতে একদিনে রেকর্ড সংখ্যক আক্রান্ত
   ডব্লিউএইচওর ইতিহাসে প্রথম ভার্চুয়াল অধিবেশন
   করোনায় আক্রান্ত ছাড়াল ৪৮ লাখ
   মেক্সিকোতে অ্যালকোহল পানে ১২১ জন নিহত
   ব্রাজিলে রোগীর চাপে ভেঙে পড়ছে স্বাস্থ্য ব্যবস্থা
   সৌদিতে করোনায় একদিনে আক্রান্তের সর্বোচ্চ মক্কায়
   ভ্যাকসিন আসার আগেই প্রাকৃতিকভাবে ধ্বংস হবে করোনা?
   করোনাভাইরাসের ভ্যাকসিন পেতে লাগবে এক বছর
   করোনা মোকাবিলায় সফল বলা হচ্ছে যেসব দেশকে
   সুস্থ হয়ে কাজে ফিরেছেন নিউইয়র্কের ৫ হাজারের বেশি পুলিশ


  পুরনো সংখ্যা